কোরাণ পাঠে উৎসাহ দিয়ে সালাম সেন্টারের প্রচ্ছন্ন মদত মুসলিম ধর্মান্তকরণে ?

0

Last Updated on

ফেসবুকে ইসলামকে নিয়ে করা মন্তব্যের জন্য হিন্দু এক মহিলাকে পাঁচটি কোরাণ দেওয়ার শর্তসাপেক্ষে জামিন মঞ্জুর করেন রাঁচি উচ্চ আদালতের এক বিচারপতি | এই নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় সরব বিজেপি সমর্থক থেকে সাধারণ মানুষ | তথাকথিত সার্বোভৌম রাষ্ট্র ভারতে এহেন আচরণ কি সাম্প্রদায়িকতাকে উসকে দেয় না প্রশ্ন করছেন কেউ কেউ |

এরই মাঝে এই রায়দানের দিন মঙ্গবারই দেশের অন্য প্রান্তে আরেক আদালতে ইসলামীয়করণের অভিযোগ উঠল বারের বিরুদ্ধে | অভিযোগ, সেখানে সালাম কমিটির সদস্যরা সমাজের নানা স্তরের অ-মুসলিমদের মধ্যে তাঁদের ধর্মভাবনা ছড়িয়ে দিতে কোরাণ উপহার দিয়ে থাকেন | কোরাণ ছাড়াও হজরত মহম্মদের বাণী সম্বলিত নানা গ্রন্থও উপহার দেন বিনামূল্যে | তাতে সামাল কমিটি পরিচালিত ওয়েবসাইটটির দাবি, কোরাণ ফ আলি এই বইটির ব্যপক সফলতা মিলেছে অমুসলিম ডাক্তার, পড়ুয়া,শিক্ষাবিদ, বুদ্ধিজীবী এমনকি আই টি প্রোফেশনালদের মত হোয়াইট কলার জব করেন এমন মানুষের মধ্যে |

সালাম সেন্টারের উদ্যোগে এই সফলতাকে মাথায় রেখে কর্ণাটক উচ্চ আদালতে এবার কর্ণাটক উচ্চ আদালতের বিচারক ও আইনজীবীদের কোরাণ পাঠে উতসাহিত করার জন্য তাদেরকে সশরীরে কোরাণ দেওয়ার উদ্যোগ নিয়েছিলেন এই সংস্থাটি | জনে জনে দেখা করে তাদেরকে কোরাণ দানে মিলবে বেশি সাড়া,মনে করেছেন সালাম সেন্টারের প্রতিষ্ঠাতা সদস্য সৈয়দ হামিদ মোহসিন | এর আগে দরজা দরজায় পৌঁছনোর আগে বিচারপতি ও আইনজীবীদের নিয়ে হওয়া কর্ণাটক উচ্চ আদালতের কনফারেন্স হলে যে অনুষ্ঠান তারা করেছিলেন তাতে ব্যপক সাড়া মিলেছে বলে জানান হামিদ | তারপরই ব্যক্তিগত ভাবে গিয়ে প্রত্যেক আইনজীবী ও বিচারপতিদের কোরাণ দেওয়ার পরিকল্পনা মাথায় আসে বলেও জানান তিনি |

দেশের একপ্রান্তে বিচারপতিদের কোরাণ পাঠে উৎসাহিত করার কাজে ব্রতী এই সালাম সেন্টার নামক সংগঠনটি কি তবে রাঁচিতেও তাদের বিস্তার ঘটিয়েছে ? রিচা ভারতীর ইসলাম বিরোধী ফেসবুক পোস্টের অপরাধে বিচারপতির ৫ টি কোরাণ দেওয়ার নিদান সেই জল্পনাই উসকে দিচ্ছে |

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here