পশু নির্যাতনের একাধিক ভিডিও পোস্ট করে প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী তথা পশুপ্রেমীর রোষে টিকটক,কর্তৃপক্ষকে চিঠি তথ্য সম্প্রচার মন্ত্রকের

0
Animal lover Maneka Gandhi warns TikTok

Last Updated on

বারবারই বিতর্কের মুখে পড়েছে টিকটক ভিডিওর প্রশাসনিক কর্তারা। কারণ অভিযোগ উঠেছে তারা অনেক সময়ই কমিউনিটি গাইডলাইন নি মেনে অনেক ভিডিওই পোস্ট করতে দিয়েছেন যা দেশের গাইডলাইনকে লঙ্ঘন করে। সম্প্রতি একই অভিযোগ তুললেন সুলতানপুরের বিজেপি সাংসদ মানেকা গান্ধী। যিনি পশুপ্রেমী ও সংশ্লিষ্ট মন্ত্রকের প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রীও বটে। তিনি কয়েকদিন আগে পশুদের উপর নিষ্ঠুরতা দেখিয়ে দুটি পৃথক ভিডিও টিকটকে পোস্ট করা নিয়ে আপত্তি জানান। চিঠি লেখেন টিকটকের দেশের সর্বোচ্চ কর্তা গাইডলাইন নিয়ন্ত্রণের ।

আরো পড়ুন :‘রোজ লাউড স্পিকারে আজানের শব্দ অস্বস্তিকর,’ ইসলাম ধর্মীয়গুরুদের তা বন্ধের আর্জি জাভেদ আখতারের

মোহিত বনশলকে ১৪ই মে একটি মেলে তিনি জানান যে অবিলম্বে যে দুটি অ্যাকাউন্ট থেকে এই ভিডিওগুলি পোস্ট করা হয়েছে তা তাদের নাম ঠিকানা তুলে দিক কর্তৃপক্ষ। ওই ভিডিওগুলি মুছে ফেলার পাশাপাশি তাদের অ্যাকাউন্টগুলিও ব্লক করা হোক। সূত্রের খবর এরপরেও কর্ণপার করেনি টিকটক কর্তৃপক্ষ। ভিডিও মুছে ফেললেও তাদের বিস্তারিত পরিচয় তুলে দেয়নি তারা ।

ফলে মোহিত বনশলের চিঠির জবাব সন্তোষজনক না হওয়ায় মানেকা গান্ধী সোজাসুজি তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রকএ টিকটকের বিরুদ্ধে দেশের কমিউনিটি গাইডলাইন না মানার অভিযোগ তোলেন। ২১শে মে সেই চিঠি পাওয়ার পর নড়েচড়ে বসে কর্তৃপক্ষ। তাদের প্ল্যাটফর্ম থেকে ভবিষ্যতে এমন কোন ভিডিও পোস্ট হবে না বলে লিখিত সম্মতি দেয় টিকটক কর্তৃপক্ষ ।

আরো পড়ুন :ধর্মীয় উস্কানিমূলক খবর পেশের অভিযোগ তুলে বিহার পুলিশের মামলা দায়ের দুই দক্ষিণপন্থী সংবাদসংস্থার বিরুদ্ধে

প্রসঙ্গত দুটি ভিডিওর একটি কুকুর ও একটি বিড়ালকে নিয়ে পোস্ট করা হয়েছিল। একটি ভিডিওতে দেখানো হয় একটি কুকুরকে মেরে ড্রেনে ফেলে রাখা হয়েছে।অন্যদিকে ভিডিওতে দেখা যায় একটি বিড়ালের মুখবন্ধ করে প্রায় শ্বাসরুদ্ধ করা হয়। মানেকা গান্ধীর অভিযোগ ভোপালের ওই নির্দিষ্ট একটি অ্যাকাউন্ট থেকে একাধিকবার কুকুরের উপর হওয়া নানা নির্যাতনের ভিডিও আগেও পোস্ট করা হয়েছে ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here